কাদার সঙ্গে যুদ্ধ হাতির

0
2076

আমাদের পীরগঞ্জ ডেক্সঃ কাদায় অসহায়ভাবে পড়ে আছে ‘রাজলক্ষ্মী’। সে একটিবার উঠে দাঁড়াবার জন্য অনেক চেষ্টা করছে। কিন্তু জোর পাচ্ছে না শরীরে। কয়েকদিন ধরে একই স্থানে একইভাবে একপেশে হয়ে তার এমন শুয়ে থাকা। গত সাত দিন ধরে কাঁদায় পড়ে থেকে বেঁচে থাকার সর্বশেষ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে রাজলক্ষী। তাকে বাঁচাতে মালিক, আপ্রাণ চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে। এরইমধ্যে রাজলক্ষী মুখে খাবার নেয়া একেবারেই বন্ধ করে দিয়েছে। তাকে বাঁচিয়ে রাখতে এখন তার খাবারের যোগান হিসেবে দেয়া হচ্ছে স্যালাইন। প্রায় ৩ টনের এই হাতিটির নাম ‘রাজলক্ষ্মী’। বয়স ৩৫ বছর। বর্তমানে সে ডান পায়ে আঘাত পেয়েছে আহত হয়ে মাটিতে শুয়ে পড়ে রয়েছে। হাতি বলে কথা! এক পাশ হয়ে পড়ে থাকা এমন হাতিকে দেখতে মানুষের ভিড় লেগেই আছে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ঢাকা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের একপাশে। হাতিটির মালিক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, গত শুক্রবার (১৪ জুলাই) গভীর রাতে একটি সার্কাস গ্রুপে লোকজন ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া থেকে ট্রাকযোগে এই হাতিটিকে শ্রীমঙ্গল নিয়ে আসে। শ্রীমঙ্গলের গরু-মহিষের হাটের উঁচু জায়গাটিতে না নামিয়ে মৌলভীবাজার রোডের রাস্তার পাশে নামিয়ে দেয়। নামানোর সময় হাতিটি পায়ে প্রচন্ড ব্যথা পায়। শনিবার সকালে এসে দেখি হাতিটি হাঁটতে পারছে না। দাঁড়াতে পারছে না। বসে যাচ্ছে। রাজলক্ষ্মীর ওজন প্রায় ৬০-৭০ মন।
সিরাজুল ইসলাম আরো বলেন, গতকাল থেকে অবস্থার একটু উন্নতির জন্য এলোপ্যাথি ঔষধের পাশাপাশি বনজ ঔষধের চিকিৎসাও চলছে। প্রাণিসম্পদ দপ্তরের কমকর্তাও এসে যোগাযোগ রাখছেন।
জেলা ভেটেরিনারী সার্জন ডা. নিরোদ চন্দ্র সরকার জানান, রাজলক্ষী নামক হাতির দুর্ঘটনা জনক ইনজুরি কারণে এমনটা হতে পারে। তার সুস্থ্য হওয়ার লক্ষণ তেমন ভাল নয় বলে তিনি জানান। বৃহস্পতিবার সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, হাতিটিকে লোকজন ভিড় করে আগলে রয়েছে। হাতির ডান পায়ে পাইপ পুশ করে স্যালাইন দেয়া হচ্ছে। মাঝে মাঝে হাতিটি সামনের দুই পা নড়াচড়া করে উঠছে। বৃষ্টি বা রোদ থেকে রক্ষা পেতে উপরে টানানো রয়েছে ত্রিপাল। রাজলক্ষ্মীর সেবার নিয়জিত অপর সহযোগিরা হলেন আব্বাস মিয়া, খোরশেদ মিয়া, নাইয়র মিয়া ও হারুণ মিয়া। শ্রীমঙ্গল উপজেলার প্রাণিসম্পদ দপ্তরের ভেটেরিনারি সার্জন ডা. মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘হাতিটি ট্রাক থেকে নামতে গিয়ে পড়ে গিয়ে ডান পায়ে প্রচন্ড ব্যথা পেয়েছে। সে দাঁড়িয়ে উঠতে জোর পাচ্ছে না। প্রাণিসম্পদ সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সাথে কথা বলে এবং হাতিটির সিমটমের উপর নির্ভর করে তাকে প্রয়োজনীয় ঔষধ দেয়া হয়েছে। তবে সুস্থ্য হতে সময় লাগবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

11 − ten =