ছলোনার জয়োগান- মাহাবুবা লাকি

0
1853

তুমি যে আজন্ম কালের হৃদয় বন্ধন
পারিনি তো ভুলে যেতে,
মৃদঙ্গ মুরাল মুরালির সুরের মূর্ছনা বেয়ে
একদিন দেখা হয়েছিল এই মহাকালের।
চৌদ্দটি বসন্তের উচ্ছ্বাসে গেথেছি
অনাগত দিনের স্বপ্ন করবী মালা।

তোমার অমীয় কথার বানী,সুরের মূর্ছনা
রুক্ষ্ম ধূসর পাঁজরে রঙিন স্রোতাবহ এনে,
মহাপ্লাবনে ভেসেছিল এ প্রেম।
আর স্বপ্নেরা মুক্তমনে বিহঙ্গ ডানা মেলেছিলো
তৃষিত মরু বক্ষকে সিক্ত করতে।

হঠাৎ বাস্তবতার দেওয়াল সামনে এসে উঁকি দেয়
প্রয়োজনের জগত থেকে অপ্রয়োজনের
এটা ছিল অনন্ত অভিসারের বাসোনা মাত্র।
লজ্জা আর অভিমানে অহরহ জ্বলে
অবজ্ঞা অবহেলার বর্ষনে ভয়াল সংহার রূপে,
আজ সব পতিত মহাকালের অকাল বন্যায়
অন্তহীন দুঃখেরা অভিমানী কান্নায় সন্ন্যাসী হয়েছে।

সবখানেই ছলোনার ই জয়োগান
একই অঙ্গে এতো রূপ নিয়ে সে,
উপহাসে হেসে কুটি কুটি।
অভিনয়ের পথচলায় হয়তো কারো আশীর্বাদ ফাগুন
ঘোর অন্ধকারে, তীব্র শীতে,কলঙ্ক কালিমার কথা
না ভেবে এতোটা ফাগুন যে বৃষ্টিতে ভিজে,
কুহু- কুহু করলো।

অলস ডায়নীর কাঁধে মাথা রেখে
ভাঙ্গা পেন্সিলের স্কেচে এঁকে দিলে,
আমার ললাটে দুঃখের বর্ণমালা।
একই সুর তুলে নিত্য ভাবরসে সিক্ত সে প্রেম
মোহনীয় কামোনায় শুধু ছলোনার জয়োগানে,
ভাসিয়ে নিতে চায় ভালোবাসার অলকাপুরীতে।
বাহ্যিক শুন্যতার মাঝে অন্ধকারে
রাধিকার অভিসারের চিত্র এঁকে।

মাহাবুবা লাকি
২১/৮/১৮

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

one + fifteen =