বেকারদের নিয়ে জ্বীনের বাদশার নতুন ফাঁদ

0
1376

এম,এ,এস মন্ডল:
লক্ষ বেকারের চাকুরীর সন্ধানে চাকরীর বাজার। আবার সঠিক কর্মের সন্ধানে আমরা, “চাকরী ডাক” পত্রিকায় সরকারি, এনজিও প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ ব্যতিরেকে অন্যান্য বেশ কিছু বিজ্ঞাপন ভুয়া বলে অভিযোগ করলেন ভুক্তভোগী চাকরী প্রত্যাশী বেকার যুবক যুবতীরা।
তারা অভিযোগ করে বলেন এই পত্রিকা গুলো থেকে আমরা সরকারি বিজ্ঞাপন ও এনজিওর বিজ্ঞাপন গুলো সঠিক পাই। কিন্তু কোন কোন প্রতিষ্ঠান আকর্ষনীয় বেতনে বেশ কিছু ভালো পদবীর লোভ দেখিয়ে বিজ্ঞাপন ছাড়েন। আমরা সেগুলোতে
জীবন বৃত্তান্ত সমেত দরখাস্ত করলে পুরুষ/ মহিলা কন্ঠে আমাদের কল দেন। বলেন আপনার চাকরীটা হয়ে গেছে। রেজিষ্ট্রেশন, উন্নয়ন বাবদ ১৫০০/ ২০০০ টাকা এই নম্বরে বিকাশ করতে হবে। কিন্তু যদি বলা যায় আমরা সরাসরি টাকা নিয়ে আপনার অফিসে যাবো। সেক্ষেত্রে তারা একেবারেই নারাজ। কেউ কেউ টাকা পাঠানোর পর ওই সীম বন্ধও হয়ে গেছে। সম্প্রতি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রংপুরের পীরগঞ্জের শাহ আব্দুর রউফ কলেজের দুই ছাত্র এরকম একটি প্রতিষ্ঠানে দরখাস্ত করলে, নিয়োগপত্র দেবার কথা বলে ২০০০ করে টাকা চেয়ে বসেন ওই ভুয়া কর্তৃপক্ষ। তারা ঢাকায় সরাসরি টাকা নিয়ে তাদের অফিসে যেতে চাইলে কর্তৃপক্ষ অপারগতা প্রকাশ করে বলেন বিশ্বাস না হলে দরকার নেই। একজন টাকা পাঠায়, তারপর থেকে সেই সীম বন্ধ পাওয়া যায়। কেউ কেউ মন্তব্য করলেন এটা জ্বীনের বাদশার আরেক ধোকা। তবে চাকরীতে বেতন পাবার আগে কেউ টাকা চাইলে বুঝতে হবে এটি ভুয়া এমন মন্তব্য করলেন বেশ কয়েকজন। বেকার যুবক ভাইয়েরা বলেন এমন স্বনামধন্য পত্রিকার সম্পাদকের উচিৎ সঠিক তথ্য জেনে তাদের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা। তাছাড়া প্রতিনিয়ত বেকাররা ধোকার সম্মুখিন হবে। খুব শিঘ্রই এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে মত প্রকাশ করলেন অনেকে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen − fifteen =