রুমা হাসপাতালের ৪ জন মেডিকেল অফিসার লাপাত্তা। মানবেতর জীবন যাপন

0
2357
রুমা (বান্দরবান) প্রতিনিধিঃ

বান্দরবানের রুমা উপজেলা সরকারি হাসপাতালে সম্প্রতি নতুন ৫ জন মেডিকেল অফিসার নিয়োগ দেয়া হলেও মাত্র একজন মেডিকেল অফিসারই কর্মস্থলে আছেন। অপর ৪ জনই লাপাত্তা। সার্ভিস রুলস মতেযেকোন সরকারি চাকরিতে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকর্মচারীদের একই কর্মস্থলে অন্ততঃ ২বছর চাকরিতে থাকতে হবে। এ সময়ের মধ্যে অন্যত্র বদলি, প্রেষণে যাওয়া বা কর্মস্থলের বাইরে যাওয়া বিধিমতে পুরোপুরি বেআইনি।

সরকারি কঠোর বিধিবিধান থাকলেও বান্দরবান জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের প্রশাসনিক দুর্বলতা, তদারকির অভাব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দায়িত্বে অবহেলার কারণেই আগেকার মত এ জেলায় সরকারি প্রচলিত নিয়োগ বিধির শর্তাবলী লংঘিত হচ্ছে। ফলে রুমা উপজেলার প্রায় ৪০ হাজার ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠী তাদের কাংখিত চিকিৎসা সুবিধা থেকে এখনও বঞ্চিত। এ হাসপাতালে একটি নতুন অ্যাম্বুলেন্স প্রদান করা হলেও সেটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে রোগীদের কাছ থেকে নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুণ আদায় করা হচ্ছে। এতে রোগীদের অভিভাবকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। একই সাথে সরকারি সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে রোগীরা। রুমা উপজেলা সদর সফরকালে গত বৃহস্পতিবার সকালে এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, মাত্র ২মাস আগে এ উপজেলা সরকারি হাসপাতালে একজন ডেন্টাল সার্জনসহ ৫জন মেডিকেল অফিসার নিয়োগ দেয়া হলেও তাদের মধ্যে সেই ডেন্টাল সার্জনসহ ৪জনই বিভিন্ন প্রশিক্ষণ এবং ছুটির অজুহাতে জেলার বাইরে অবস্থান করছেন দীর্ঘদিন ধরে। উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তার পদটিও খালি। থানছি উপজেলা সরকারি হাসপাতালের উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে রুমা উপজেলা সরকারি হাসপাতালের অতিরিক্ত দায়িত্ব্‌ রাখা হয়েছে। তবে রুমা উপজেলা হাসপাতালের পুরো চিকিৎসাসেবার কাজ মাত্র একজন মেডিকেল অফিসার দিয়েই কোন মতে চলছে। ৬জন নার্স রয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে দাবি করা হলেও তাদের মধ্যে ৪জনই অনুপস্থিত থাকেন কর্মস্থলে। পরিদর্শনকালে একজন নার্সকেও কর্মস্থলে দেখা যায়নি। অথচ এ সময় নারীপুরুষ মিলে ৭জন রোগী চিকিৎসাধীন ছিলেন।

রুমা হাসপাতালে নানা বয়সী গড়ে ৭০জন রোগী প্রতিদিন এবং সাপ্তাহিক দুই বাজারদিনে শতাধিক রোগী আউটডোর থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। প্রতিদিনই গড়ে ৫/৭জন রোগী ভর্তি হন ১০ বেডের এ উপজেলা সরকারি হাসপাতালে। অরক্ষিত ও পানি সমস্যা রয়েছে এ উপজেলা হাসপাতালে। রোগীদের প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র দেয়া হয় না বলেও অভিযোগ রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

eighteen − 4 =